শুক্রবার রাতে হজে যাচ্ছেন মা-ছেলে

বিশ্বকাপটা দুর্দান্ত কেটেছিল সাকিব আল হাসানের। সদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফর্মের পর কটা দিন ছুটিতে ছিলেন বিশ্বসেরা এই অল-রাউন্ডার। তাই খেলা হয়নি শ্রীলঙ্কায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে। এই সময়ে সাকিব সেরেছেন মাকে নিয়ে হজে যাবার প্রস্তুতিও। বিশ্বকাপে সাকিবের অনন্য সব অর্জনও গ্যালারিতে থেকে দেখেছেন সাকিবের মা।এবার মাকে নিয়ে পবিত্র হজের উদ্দেশে রওনা দেয়ার পালা। এর আগেও মা ও স্ত্রীকে নিয়ে ওমরাহ্‌ পালন করেন সাকিব। আজ শুক্রবার রাতেই রওনা করবেন পবিত্র হজের উদ্দেশে। গতকাল বনানী বিদ্যানিকেতনে ডেঙ্গু বিষয়ক একটি কার্যক্রমে অংশ নেন সাকিব।

সেখানে তিনি বলেন, শুক্রবার পবিত্র হজের উদ্দেশে রওনা করব। এরপর আফগানিস্তানের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ রয়েছে। যদি ফিট থাকি তাহলে আশা করছি এই সিরিজে খেলায় ফিরব। মা শিরিন আক্তারকে নিয়ে হজে যাবার আগে গত কদিন স্ত্রী-কন্যাকে নিয়ে ইউরোপ ভ্রমণ করেন এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার। এরপর স্ত্রী-কন্যাকে যুক্তরাষ্ট্রে রেখে দেশে ফেরেন।দেশে ফেরার পর চট্টগ্রামের মেয়র আজম নাসিরের আমন্ত্রণে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও যোগ দেন তিনি। হজ পালন শেষে দেশে ফিরেই যোগ দেবার কথা আফগানিস্তান সিরিজের কন্ডিশনিং ক্যাম্পে। এই ক্যাম্প শুরু হবে আগামী ২০ আগস্ট থেকে।

স্মরণীয় ঘটনা মনে করালেন অমিতাভ ১৯৮২ সালের ২৬ জুলাই কুলি সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে গুরুতর জখম হন অমিতাভ বচ্চন। বহুদিন মৃত্যুর খুব কাছাকাছি ছিলেন তিনি। ৩৭ বছর আগের সেই ঘটনায় হাসপাতালে দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২ আগস্ট জ্ঞান ফিরেছিল তার। তাই এই দিনটাকেই নিজের দ্বিতীয় জন্মদিন বলে মনে করেন। ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীরাও তাকে এই দিনে ভালোবাসা জানান। সেই সময়ের কথা মনে করে শুক্রবার ভোর রাতে টুইটারে পোস্ট করেছেন অমিতাভ। লেখেন, এমন অনেকেই আছেন যারা আজও এই দিনটার কথা মনে রেখেছেন।

একটা কথা হলো, এমন সুন্দর চিন্তাভাবনা আমাকে ঘিরে আছে বলে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। এই ভালোবাসা আমাকে প্রতিদিন এগিয়ে যেতে সাহায্য করে। এই ঋণ কোনোদিন শোধ করতে পারব না। অমিতাভের দুর্ঘটনা ঘটেছিল ব্যাঙ্গালোর বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে। পরবর্তীতে তাকে মুম্বাইতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। ব্লগে অমিতাভ জানিয়েছিলেন, ভেন্টিলেশনে তাকে দেওয়ার আগে কয়েক মিনিটের জন্যে তিনি ক্লিনিক্যালি মৃত ছিলেন। ডাক্তাররাও ঘোষণা করে দিয়েছিলেন। কিন্তু সবার আশীর্বাদ ও ভালোবাসায় আবারও জীবন ফেরত পান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *