যাও, মা’ফ করে দিলাম !

কবি জয় গোস্বামীর কবিতার মতো প্রাক্তনের প্রতি এমন অ’ভিমান মেশানো জি’জ্ঞাসা থাকে অনেকের। কিন্তু অধিকাংশেরই থাকে হাজারটা অভিযোগ, প্রবল ঘৃ’ণা ও ক্ষ’মাহীন ক্ষো’ভ। হয়তো এই সব অনুভূতির পেছনের কারণগুলো যথার্থই যৌক্তিক। কিন্তু তা বলে অনুভূতিগুলো সারা জীবন ধরে পুষে রাখারও কি যৌক্তিক কারণ থাকে সব সময়?

পুষে রাখা মানেই তো নিরন্তর মা’নসিক পীড়ন। চলে যাওয়া মানুষটিকে নিজের ভেতর ঘৃণায় বাঁচিয়ে রাখা শুধু। কেবলই যেন বুকের ওপর অনড় জগদ্দল পাথর চা’পিয়ে রাখা। তার চেয়ে প্রাক্তনকে নিঃশর্তে ক্ষমা করে দিলে কেমন হয়! অসহনীয় অতীতকে ভুলে যাওয়ার ক্ষেত্রে এর চেয়ে সহজ পথ বোধ হয় কমই আছে।

চলে গেছে যে মানুষ ফেরার আকুতিকে উপেক্ষা করে, যেতে দিন তাকে। প্রাক্তনকে ক্ষ’মা করে দেওয়ার এই দিবসে আরেকবার মনে করুন। যা আছে অ’ভিযো’গ, ক্ষো’ভ কিং’বা ঘৃ’ণা—সব ভুলে গিয়ে বলে দিতে পারেন, ‘যাও, তোমাকে মা’ফ করে দিলাম।’

اترك تعليقاً

لن يتم نشر عنوان بريدك الإلكتروني. الحقول الإلزامية مشار إليها بـ *